অভার্থিনকিং এটা এমন একটি সমস্যা যা আপনার সুন্দর জীবনটাকে নষ্ট করে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট আমাদের ব্রেন বারবার সেটাই আমাদের মনে করায় যে আমাদের মন ভুলতে পারেনা আমাদের প্রেম সব সময় কোন না কোন কিছু ভাবতে থাকে আমরা যখনই কোনো কিছু ভাবি আর সেখান থেকে আমরা অন্য কোন চিন্তা নিয়ে আসে আর তখন আমরা আবার সেটাকে ভাবা শুরু করে আর তার মাঝ থেকে আবার অন্য কিছু চিন্তা করা শুরু করে আর এভাবেই ভাবতে ভাবতে আমরা এমন জায়গায় পৌঁছে যায় যার সাথে বর্তমান জীবনের কোনো সম্পর্ক নেই আমার মনে হয় আমাদের ব্রেইন আমাদের সাথে খেলা করে এরপর আমাদের সেটাই মনে করেন যা আমরা ভুলে যেতে চাই কিন্তু এটাও সত্যি কেবল আপনার ব্রেইন চাইলে আপনি কোন কিছু ভুলে যেতে পারবেন না কারণ সে তাকে মন থেকে মানতে 

হবে যে আপনি সত্যিই বলতেছি কারণ ব্রেইনের কাজ হল লজিক্যালি চিন্তা করা ফ্যাটকে দেখা আর মনের কাজ হলো ফিলিংসটা বোঝা আর যতক্ষণ আহারে ফিলিং শেষ না হবে ততক্ষণ আপনি সেটাকে ভুলতে পারবেন না অর্থাৎ একদিকে আপনি ভালো আছেন তাকে ভুলতে হবে আর অন্যদিকে আপনি তাকে নিয়ে চিন্তা করছেন তার কারণে আপনি অন্য কিছু করতে পারছেন না তাহলে দ্রুত চিন্তায় আপনাকে শান্তিতে থাকতে দেবে না আর এটাকেই বলে অভার্থিনকিং অভার্থিনকিং কখনো হঠাৎ করে আসে না অভার্থিনকিং হলো সেটা যখন আমাদের প্রেমিকার মনে অন্য কিছু চলে আর যতক্ষণ আপনি দুটোকে আলাদা করে রাখবেন অভার্থিনকিং থাকবে আর যখন আপনি দুটোকে এক করে দেবেন অর্থাৎ

 মন থেকে চাইবে সেটাই ভাববেন জাফরিন থেকে ভাববেন তখনই অভার্থিনকিং শেষ হয়ে যাবে আর তখন আপনি অনেক শান্তি অনুভব করবেন তাই সবার আগে আপনাকে বুঝতে হবে প্রবলেমটা কোথায় আপনার ব্রেইন কি চাইছে আর আপনার মন কি চাইছে যদি আপনি কেবল মনের কথা শোনেন তাহলে সেটা আপনাকে সমস্যায় ফেলবে কারন মনে চিন্তা করা নয় এর কাজ হলো কেবল ফিলিংস অনুসারে ভালোবাসা ও ঘৃণার পরিস্থিতিকে তৈরি করা আর এটা কতটা কতটা ভুল সেটা আপনার ব্রেন ঠিক করবে তাই সবার আগে ব্রেনের কথা শুনুন কি সমস্যা আছে যাতে করে আপনার মন সেটাকে একসেপ্ট করতে পারে আর আমি এই অভার্থিনকিং থেকে সহজে বেরিয়ে আসতে পারেন এরপর যখন আপনার

 অভার্থিনকিং অনেক বেশি হয়ে যাবে অর্থাৎ আপনি কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না যে কি করবেন আর কি করবেন না আপনি ব্রেনের কথা শুনবেন নাকি মনের কথা শুনবেন তখন আপনি কেবল চিন্তাটাকে ওখানে ছেড়ে দেয় সেটাকে বারবার বলা বা চিন্তা করা বন্ধ করুন আপনি কেবল ভুবন করুন আপনি না এটা ভাববেন যে আমি এটা করব না এটা ভাববেন যে আমি এটা করব না এই দুটোই যদি আপনাকে বিরক্ত করে তাহলে কোন কিছুই ভাবার দরকার নেই কারন কিছু সময় পর এই সবকিছু অটোমেটিক ঠিক হয়ে যাবে এরপর হলো কোন সমস্যার সমাধান খোঁজা বন্ধ করুন আমরা বেশি চিন্তা

 এই কারণেই থাকি কারন আমরা কোন না কোন প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করে আমরা ভাবি সে আমার সঙ্গে এমন টা কেন করলো আমি এখন কি করবো যদিও আপনার যা করা সেটা আপনি আগে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কেবল আপনি সেটা মহান্ত বুঝতে চাইছেন না কারণ আমি আগেই বললাম আমাদের কিছু চায় আর আমাদের মন কিছু চায় তাই এদেরকে যুক্ত করুন তাহলে আপনি একটি নতুন রাস্তা পাবেন যেমন নদী যখন পাহাড় থেকে চলা শুরু করে তখন সে জানে না কোন দিক দিয়ে যাবে সে 

কেবল চলতে থাকে আর রাস্তা অটোমেটিক তৈরি হতে থাকে একই ভাবে আপনাকে কোন সমাধান খুঁজতে হবে না সমাধান আপনার কাছে আছে আপনাকে কে বলছে তাকে খুঁজতে হবে এরপর হলো কালকের চিন্তা না করে আজ কেবল নিজের উপরে মনোযোগ দিয়ে নিজের খেয়াল রাখা নিজেকে ভালোবাসো নিজের চিন্তাকে নিয়ে এগিয়ে যাওয়া নিজের কাজে মন দেওয়া নতুন জায়গায় ঘুরতে যাওয়া এক্সারসাইজ করা কেবল এই সব কিছুতে মনোযোগ দিয়ে এতে আপনার বডিতে একটি আলাদা এনার্জি পাবে আর আপনি নিজেকে অনেক পাওয়ারফুল ফ্রেশফিল করবেন 


Reactions

Post a Comment

0 Comments