সব সময় নিজেকে অন্যের থেকে আগে রাখতে ও নিজেকে কনফিডেন্ট রাখার জন্য আপনাকে এমন

 


সব সময় নিজেকে অন্যের থেকে আগে রাখতে ও নিজেকে কনফিডেন্ট রাখার জন্য আপনাকে এমন অনেক কিছু করতে হয় যা পাখি লোক গুলো তো জানে কিন্তু কখনোই করেনা আমাদের কেউ ছেড়ে দিলে বা খারাপ কেউ কিছু বলে দিলে সেটা নিয়ে আমরা মন খারাপ করি কারণ ব্রেইনকে তো বোঝানো যায় কিন্তু মনকে বোঝানো অনেক কঠিন হয়ে যায় আর এই কারণে আমরা রাস্তা হারিয়ে ফেলি আর আমাদের জীবনে হাজারো সমস্যা চলে আসে আজ আমি আপনাদের এমন কিছু কথা বলব যে আপনার ক্যারিয়ার ও আপনার মনের জন্য অনেক দরকার তাই গল্পে টিকে লাস্ট পর্যন্ত অবশ্যই দেখুন সবার প্রথমে নিজের দুর্বলতা কে নিজের শক্তি তৈরি করুন যখন আমরা কোনো কিছুতে আগাতে পারি না আর তার পরেও যখন আমরা অনেক পরিশ্রম করি তখন কিছু লোক আছে যারা আপনার উপর 

আঙ্গুল তোলে যেমন আপনি যদি লিখতে ভালোবাসেন তাহলে এরা বলবে যে কি ফালতু লেখা বা আপনি কোন যোগ করলে এরা বলবে যে কি ফালতু জব করছিস আর এইসব কথা আমাদের মনে এমন ভাবে বসে যায় যে আমাদের কনফিডেন্স একদম শেষ হয়ে যায় আর তখন আমরা অনেক মন খারাপ করি ওর রাগ হয় কিন্তু আপনাকে এদের কথা শোনা উচিত নয় বরং একবার নিজেই নিজের লেখাটা পড়ুন আর দেখুন সেটা ভালো হয়েছে নাকি খারাপ অথবা আপনি যে জব করছেন সেখানে আপনার নেক্সট প্ল্যান কী আপনি কিভাবে জীবনে এগিয়ে যাবেন এই সব কিছু খেয়াল রাখুন বাকি অন্য লোকে কি বলল তাতে আপনার মন খারাপ করার কোন দরকার নেই এরপর পারফেক্ট কিছু করার চেষ্টা না করে প্রগ্রেসের দিকে খেয়াল রাখুন আমরা যখন কোন কিছুকে পারফেক্ট করার চেষ্টা করি তখন আমাদের

 কাজে অনেক বাধা চলে আসে অর্থাৎ কাজের স্পিড অনেক কমে যায় আপনাকে কাজের কোয়ালিটি তো ভালো করতেই হবে কিন্তু প্রগ্রেসের দিকেও খেয়াল রাখতে হবে যেমন একটা ছিল সে লিপ্ত তো খুব ভালো কিন্তু সে দ্রুত কাজ করতে পারত না এই কারণে সে অল্প কিছু লিখতে পেরেছিল কিন্তু তার স্বপ্ন ছিল সে একটিভ পাবলিশ করবে এরপর এই ব্যক্তি একটি অ্যাডভান্স রাইটারের পরামর্শ নিন এই ব্যাক্তি জিজ্ঞেস করে যে আপনি এত দ্রুত কিভাবে কাজ করেন কিভাবে এত তাড়াতাড়ি নতুন বই পাবলিশ করেন আমিতো এখনো পর্যন্ত একটা বইও লিখতে পারেনি তখন তিনি বলেন আপনি প্রতিটি লাইন প্রতিটি শব্দ কে এমন ভাবে লেখেন যেন কোন মানুষ আপনাকে জাগনা করে আর সবাই যেন পছন্দ করে কিন্তু এটা কোনদিন হবে না লোক সবসময় আপনাকে জাস্ট করবেই আর লোক সম্পূর্ণ বই 

পড়ার পর আপনাকে পথ করবে দুটি লাইন পড়ে নয় তাই নিজের গল্পকে সুন্দর তৈরি করার চেষ্টা করুন পার্টিকুলার কোন লাইন কে নয় এরপর এই ব্যক্তিটি নতুন করে লেখা শুরু করে তার মাত্র এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে নিজের বুক লিখে কমপ্লিট করে আর সেটাকে পাবলিশ করে দেয় আর এই বইটি লোকের এত বেশি ভালো লাগে যে লোক নতুন বইয়ের ধীমান করতে শুরু করে তাই যদি আপনি কোন একটা জিনিস নিয়ে বসে থাকেন তাহলে আপনি আটকে পড়বেন তাই নিজের কাজকে দ্রুত কমপ্লিট করুন এরপর হলে নিজের স্বার্থের লোকদেরকে মোটিভেট করে রাখুন যাতে তারা আপনাকে উৎসাহ দেয় আমাদের সবসময় নতুন কোন কাজ করার জন্য মোটিভেট থাকতেই হবে আর যদি আপনি আপনার কাজে অলসতা করেন তাহলে কিভাবে আপনি সফল হবেন এরপর হলো সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ 

তাদের সাথে অনেকক্ষণ কথা বলুন যাদের ব্রেনে সব সময় কেবল নেগেটিভ কথা থাকে আর এডভাইস যদি নিতে হয় তাহলে তার কাছ থেকে নিয়েন যে কেবল পজেটিভ কথা বলে আপনার সব সময় নেগেটিভ কথা শোনা ও এদের সঙ্গে থাকা আপনার মাইন্ডে এমন কিছু ঢুকবে যে হয়তো আপনিও এটা বলা শুরু করবেন যে কাল করব সব সময় মনে রাখবেন যে কাল করবে বলে সে ঠিক সেটাই পাবে যে আজ কাজ করেছে সে যা ছেড়ে গেছে তাই কাজ করুন যাতে সব সময় আপনার মাইন্ড আপনার বডি আপনার ক্যারিয়ার আপনার ওপরে খুশি থাকে তো বন্ধুরা আশাকরি আপনারা আমার কথাগুলো কে বুঝতে পেরেছেন 

Reactions

Post a Comment

0 Comments